May 27, 2022, 12:14 pm


রাজিব চন্দ্র পাল

মাইক্রোসফটে নিয়োগ পেলেন হাজীগঞ্জ মডেল কলেজের সাবেক শিক্ষার্থী রাজিব

স্টাফ রিপোর্টার:

বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) প্রথম শিক্ষার্থী হিসেবে মাইক্রোসফটে নিয়োগ পেয়েছেন রাজিব চন্দ্র পাল। জানা গেছে, গত বছরের ২৯ এপ্রিল ই-মেইলের মাধ্যমে রাজিবকে বিষয়টি নিশ্চিত করে মাইক্রোসফট কর্তৃপক্ষ।

চলতি বছরের ১৫ অক্টোবর মাইক্রোসফট করপোরেশনের সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে আয়ারল্যান্ডের রাজধানী ডাবলিনে মাইক্রোসফট রিসার্চ সেন্টারে যোগদান করার কথা রয়েছে তার।

রাজিব কুবির কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের ষষ্ঠ ব্যাচের শিক্ষার্থী। তার গ্রামের বাড়ি চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার গোহট গ্রামে। বাবা ব্যবসায়ী জীবন কৃষ্ণ পাল। দুই ভাই এক বোনের মধ্যে তিনি সবার ছোট। এসএসসি ২০০৯ সালে কচুয়া রহিমানগর বিএবি উচ্চ বিদ্যালয়। এইচএসসি ২০১১ সালে হাজীগঞ্জ মডেল কলেজ থেকে।

মাইক্রোসফটে কাজের সুযোগ পাওয়ার অনুভূতি ব্যক্ত করে রাজিব বলেন, আমরা যারা ইঞ্জিনিয়ারিং সাবজেক্টগুলোতে পড়াশোনা করি, তাদের লক্ষ্য থাকে গুগল, মাইক্রোসফট, ফেসবুকের মতো বিশ্বের বড় বড় টেক জায়ান্ট কোম্পানিগুলোতে কাজ করা। আমি সে লক্ষ্যে পৌঁছাতে পেরে নিজেকে খুবই সৌভাগ্যবান মনে করছি।

এক প্রশ্নে রাজিব জানান, লিঙ্কডইনের মাধ্যমে মাইক্রোসফটে আবেদন করেন তিনি। পরে কর্তৃপক্ষ চার ধাপে তার সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়। এসব সাক্ষাৎকারে কোডিং এবং সমস্যা সমাধান করেন তিনি। তিনি বলেন, কুবিসহ অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সেখানে কাজ করার যোগ্যতা রয়েছে। কিন্তু অনেকে ভয়ে পিছিয়ে থাকে। এগিয়ে গেলে তারাও সফল হবে।

হাজীগঞ্জ মডেল কলেজের পদার্থ বিজ্ঞানের শিক্ষক মোশাররফ হোসেন বলেন, রাজিব মনোযোগী ছাত্র ছিলেন। প্রত্যেক শিক্ষকের কাছে তার ছাত্র সন্তানের মতো। তার সফলতা আমাদের আনন্দিত করেছে।

কুবির কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের বিভাগীয় প্রধান পার্থ চক্রবর্তী বলেন, রাজিবের প্রথম থেকে ধ্যান-জ্ঞান ছিল প্রোগ্রামিং নিয়ে। বিশ্ববিদ্যালয়ে থাকা অবস্থায় তিনি বিভিন্ন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় ভালো ফলাফল করতেন। তার টার্গেট ছিল আন্তর্জাতিক কোম্পানিতে কাজ করা। পরে ঢাকায় গিয়েও সফটওয়্যার কোম্পানিতে কাজ করে নিজেকে ঝালাই করে নিয়েছেন। তার এ সফলতা আমাদের জন্য গৌরবের।-সূত্র: বাংলানিউজ২৪.কম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


সংবাদ পড়তে লাইক দিন ফেসবুক পেজে