Tuesday , 25 June 2024
tax

হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তির আদায় সাড়ে ১৭ কোটি টাকা : রিটার্ন দাখিলকারীর সংখ্যা সাড়ে ৬ হাজার

চাঁদপুরের ৩টি উপজেলায় আয়কর রিটার্ন আদায় সাড়ে ১৭ কোটি টাকা। সার্কেল ২১ হলো-কচুয়া,শাহরাস্তি ও হাজীগঞ্জ উপজেলা-এ তিন উপজেলা নিয়ে গঠিত।

প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে-২০২৩-২৪ অর্থবছরে সার্কেল ২১ এর ২০২৩-‘২৪ সালে সার্কেল ২১ হাজীগঞ্জ এর কর আদায়ের সম্ভাব্য লক্ষ্যমাত্রা ৪০ কোটি টাকা। নিবন্ধিত আয়কর দাখিলকারীর সংখ্যা ২২ হাজার। ২০২৩-‘২৪ অর্থবছরের ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত আদায় ১৭ কোটি ৭০ লাখ টাকা। এতে রিটার্ণ দাতার সংখ্যা ৬ হাজার ৮শ ৬১ জন। ২০২৩ সালের ডিসেম্বর ও জানুয়ারি ২০২৪ পর্যন্ত বাকি রয়েছে ১৫ হাজার ১শ ৬৯ জন।

সংশ্লিষ্ঠ হাজীগঞ্জ সার্কেলের কর্মকর্তা জানান- রাজস্ব বিভাগের নিদের্শনা অনুযায়ী সারাদেশের ন্যায় ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত রিটার্ণ জমা দেয়ার সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে রযেছে। ঐ সময়ের মধ্যে লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হবে বলে তিনি আশাবাদী।

চাঁদপুর কর সার্কেল ১৮এর সকল সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তাদের কাছ থেকে কর আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে ১৫৫ কোটি টাকা। ৩০ নভেম্বর ২০২৩ পর্যন্ত আদায় ৩৫ কোটি ১৬ হাজার টাকা। এতে তালিকাভূক্ত কর দাতার সংখ্যা হলো ৪১ হাজার।

২০২৩-২৪ অর্থবছরে এ সার্কেল ১৮ এর চাঁদপুর সদরের সকল সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তাদের বেতন ও চাঁদপুর ১৮এর কর আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা পুরণে বাকি আছে ১১৯ কোটি টাকা। এতে তালিকাভূক্ত রিটার্ণ দাখিলকারীর সংখ্যা হলো ১৬ হাজার।

সার্কেল ১৯ এর কর আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা হচ্ছে ৩৫ কোটি টাকা। ২০২৩ এর নভেম্বর পর্যন্ত আদায় ৯ কোটি ৩১ লাখ টাকা। এতে তালিকাভূক্ত কর দাতার সংখ্যা হলো ৪৪ হাজার জন। ২০২৩-২৪ অর্থবছরে এ সার্কেল এর কর আদায়ের ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত রিটার্ন জমাকারীর সংখ্যা ৭ হাজার ৯ শ ৯৫ জন। এতে তালিকাভূক্ত কর আদায় বাকির সংখ্যা হলো ২৫ হাজার ৬৯ জন।

চাঁদপুরের উপ-কর কমিশনার মো.কালিমুল্লাহ ৪ ডিসেম্বর বিকেলে বলেন,‘ চাঁদপুরে কুমিল্লা কর অঞ্চলের ৩টি সার্কেলে ২০২৩-২৪ অর্থবছরে কর আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। জানুয়ারি ২০২৪ পর্যন্ত রাজস্ব বিভাগ রিটার্ন দাখিলকারীদের সুয়োগ করে দিয়েছে। নির্ধারিত সময়ের কারণে করদাতাগণ সময় পাবেন।’

তিনি আরো বলেন, ‘ রাজস্ব বিভাগ ২০২৪ সালে নতুন একটি আইন চালু করায় রিটার্ন জমাকারীর সংখ্যা বেশি ও আদায় কম হতে পারে। এতে সরকারি কোনো কোনো গ্রেডের কর্মচারীদের দাখিলা জমা দিতে হবে কিন্তু রিটার্ণ জমা দিতে হবে না।’ ফলে দাখিলাকারীর সংখ্যা বেশি হবে এবং আদায়ের হার কম হবে।’

চাঁদপুরে মোট তটি সার্কেলের রিটার্ন দাখিরকারীর সংখ্যা ১ লাখ ১৭ হাজার জন । এ ৩ সার্কেলে নভেম্বর পর্যন্ত ১ লাখ ১৭ হাজার জন রিটার্ণ দাখিলকারীর কাছ থেকে আদায় হয়েছে কোটি লাখ টাকা। ২০২১-২২ অর্থবছরে ১৬৭ কোটি টাকা কর আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল।

এ অর্থবছরের ৩০ জুন পর্যন্ত চাঁদপুর জেলায় ৩ টি সার্কেলে কর আদায় হয়েছে ৬২ কোটি টাকা। কর প্রদান করেছেন ৩০ হাজার ৯ শ’ ৬৫ জন করদাতা।

তথ্যমতে, চাঁদপুর কর অঞ্চল ৩ ভাগে বিভক্ত। এগুলো হলো : সার্কেল ১৮, ১৯ ও ২১। সার্কেল ১৮ হলো-চাঁদপুর সদরের সকল সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তাদের বেতন,চাঁদপুর সদরের একাংশ। সার্কেল ১৯ হলো-মতলব উত্তর,মতলব দক্ষিণ,হাইমচর ও চাঁদপুর সদর। সার্কেল ২১ হলো-কচুয়া,শাহরাস্তি ও হাজীগঞ্জ উপজেলা-এ তিন উপজেলা নিয়ে গঠিত। সাধারণত: মে-জুন মাসেই করদাতাগণ আয়কর রিটার্ন দাখিল করেন বেশি।

করেসপন্ডেন্ট
২৭ ডিসেম্বর ২০২৩
এজি

এছাড়াও দেখুন

Prince

সাপ্তাহিক হাজীগঞ্জ‘র সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতির ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা

ঈদ মোবারক। আগামি ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৭ জুন ২০২৪ এবং ১০ জিলহজ্জ ১৪৪৫ হিজরি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *