December 2, 2020, 3:29 pm


হাজীগঞ্জে বালতির পানিতে পড়ে ও ফরিদগঞ্জে পুকুরে ডুবে শিশুর মৃত্যু

বিশেষ প্রতিনিধি:

হাজীগঞ্জে বালতির পানিতে ডুবে ও ফরিদগঞ্জে পুকুরের পানিতে ডুবে ২ শিশুর মর্মান্তি মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় এলাকার শোকের ছায়া নেমে আসে।

 মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার হাজীগঞ্জের বড়কুল পূর্ব ইউনিয়নের সেন্দ্রা গ্রামের জমাদ্দার বাড়িতে  বালতির পানিতে ডুবে ফারিহা সুলতানা নামের ১৫ মাস বয়সি এক শিশু মারা গেছে।

নিহত ফারিহা সুলতানা ওই বাড়ির আজাদ হোসেনের মেয়ে। খবর পেয়ে পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে নিজেদের হেফাজতে নেয়।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, এক পা দু পা করে হাঁটতে শুরু করেছে ফারিহা সুলতানা। আজ দুপুরে বসতঘরে খেলার সময় ঘর থেকে বের হয়ে অসাবধানতাবশত ঘরের সামনে থাকা রংয়ের বালতির পানিতে উপুর হয়ে পড়ে সে।

কিছু সময় পার হওয়ার পর বিষয়টি পরিবারের লোকদের নজরে আসে। এরপর বালতির পানি থেকে ফারিহাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে।

এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ আহমেদ তানভির হাসান বলেন, হাসপাতালে আমরা শিশুটিকে মৃত অবস্থায় পেয়েছি।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলমগীর হোসেন রনি বলেন, আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অপর দিকে  ফরিদগঞ্জে পুকুরের পানিতে ডুবে তিন বছরের এক শিশু মারা গেছে। সোমবার বিকালে উপজেলার কামতা এলাকার পানিশাইর গ্রামে এই দূর্ঘটনা ঘটে। নিহত শিশু ওই গ্রামের মো. দেলোয়ার হোসেনের ছেলে। এ দিন রাতেই জানাযা শেষে শিশুটিকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, এ দিন বিকালে খেলতে গিয়ে নিখোঁজ হয় শিশু আয়ান। খোঁজা-খুঁজির এক পর্যায়ে শিশুটিকে পুকুরের পানিতে ভাসতে দেখে তাকে উদ্ধার করে পরিবারের লোকজন। এরপর হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে।

এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা: আহমেদ তানভির হাসান বলেন, শিশুটিকে আমরা হাসপাতালে মৃত অবস্থা পেয়েছি। এ সময় পানিতে পড়ে শিশুমৃত্যু প্রতিরোধে তিনি পারিবারিক সচেতনতার কথা উল্লেখ করেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


সংবাদ পড়তে লাইক দিন ফেসবুক পেজে