September 30, 2020, 7:31 pm


যে কারনে মেসি সিদ্ধান্ত বদলাবেন বলে ধারণা বার্সেলোনার

অনলাইন ডেস্ক:

লিওনেল মেসির বার্সেলোনা ছাড়তে চাওয়ার খবর পুরনো। বার্সেলোনা তাকে সহজে ছাড়তে চায় না, সেটিও নতুন খবর নয়। গত চার দিনে নিয়ে অনেক জলঘোলা হলেও বার্সামেসি বিচ্ছেদ নাটকে সত্যিকারের কোনো অগ্রগতি নেই।

বার্সা কর্তৃপক্ষ এখনও মনে করছে, সিদ্ধান্ত পাল্টাবেন মেসি। থেকে যাবেন ন্যুক্যাম্পে।এমন ভাবনার কারণ অবশ্য মেসির আগের ইতিহাস। বার্সাকে আগেও তিনবারনাবলেছিলেন মেসি। কিন্তু সেই মেসি এখনও খেলছেন বার্সার হয়েই।

জানা যাক কবে কি কারণে বার্সা ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন মেসি

. ২০১৪ সালে ক্যান্সার আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন বার্সার সাবেক কোচ টিটো ভিলানো। দায়িত্ব পান টাটা মার্টিনো। মার্টিনোর অধীনে ২০১৩১৪ মৌসুমে ভরাডুবি হয় বার্সেলোনার। ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোহীন রিয়াল মাদ্রিদের কাছে কোপা ডেল রে ফাইনালে হারে বার্সা। এর পর কোয়ার্টার ফাইনালে হেরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বিদায় নিতে হয়। ছাড়া লা লিগায় অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের কাছে হেরে শিরোপা জয়ের স্বপ্নভঙ্গে একেবারেই ভেঙে পড়েছিলেন মেসি।

মৌসুম শেষ হওয়ার এক সপ্তাহ পর বার্সা ছাড়ার ইঙ্গিত দেন মেসি। পরে সাবেক কোচ টিটোর অনুরোধে সিদ্ধান্ত বদল করেন মেসি।

. ২০১৬ সালেও বার্সেলোনা ছাড়ার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন মেসি। তবে প্রথমবার দলের নিজের পারফরম্যান্সের জন্য নয়। ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে মেসির বিরুদ্ধে। স্পেনের আয়কর কর্তৃপক্ষ দাবি করে, মেসি আয়কর ফাঁকি দিয়েছেন। খবরে ইউরোপজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়। বিষয়টি আত্মসম্মানে আঘাত হেনেছে জানিয়ে ক্ষোভে বার্সা ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেন। যদিও পরে ঝামেলা মিটে গেলে আর সে পথে পা বাড়াননি মেসি।

২০১৯ সালে রেস ওয়ানের সঙ্গে সাক্ষাতে মেসি বলেছিলেন, ‘আমি ওই সময় বার্সা ছেড়ে দেয়ার চিন্তা করেছিলাম। খুবই অসম্মান বোধ করছিলাম তখন। চাচ্ছিলাম স্পেনই ছেড়ে দিতে। আর স্পেন ছাড়া মানে বার্সাকে বিদায় জানানো।

. ২০১৬ সালেই আবার এমন একটি সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন মেসি। তবে সেবার বার্সা নয়, আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকেই অবসরের ঘোষণা দিয়ে বসেন তিনি। সেবার কোপা আমেরিকার ফাইনালে চিলির কাছে হারের পর বিষয়টি মেনে নিতে পারেননি মেসি। সব দায় নিজের কাঁধে নিয়ে নেন মাঠেই। ফাইনালের পর মিক্সড জোনে দাঁড়িয়ে মেসি বলেন, ‘ড্রেসিংরুমে আমি মনে করি জাতীয় দলের হয়ে আমার দায়িত্ব শেষ করে ফেলেছি। নীলসাদা জার্সি আর আমার জন্য নয়।

কিন্তু সেই বক্তব্যের পরও জাতীয় দলে ক্লাব বার্সেলোনায় খেলা চালিয়ে যাচ্ছেন এই আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার।

বিষয়টিকে মেসির চরিত্র ভেবে আশায় বুক বাধছেন সমর্থকরা। সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে হয়তো মেসি বার্সেলোনায় থেকে যাবেন এমন আশা বার্সা কর্তৃপক্ষেরও।

তথ্যসূত্র: গোল ডট কম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


সংবাদ পড়তে লাইক দিন ফেসবুক পেজে