September 29, 2020, 11:05 am


আমি একজন সাংবাদিকতার অভিভাবককে হারালাম

তিনি শুধু সাংবাদিক নেতা নন। তিনি অনেক গুনে গুণান্নিত ছিলেন। একাধারে সামাজিক অনেক সংগঠন সৃষ্টি করছেন। জনাব ইকরাম চৌধুরী, একটি নামই নয় একটি প্রতিষ্ঠান। বতর্মানে চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি দৈনিক চাঁদপুর দর্পনের পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক, চ্যানেল আইয়ের স্টাফ রিপোর্টার, জাগো নিউজের চাঁদপুর জেলা প্রতিনিধি ছিলেন।

তিনি চাঁদপুরের সাংবাদিক জগতের এক নক্ষত্র। যার ছিলো বর্নাঢ্য সাংবাদিকতার জীবন। সরকারি চাকুরী ছেড়ে সাংবাদিকতার পেশায় যোগ দেন। তিনি প্রায় ৩৬ বছরের মতো সাংবাদিকতার পেশায় নিজেকে উৎসর্গ করে গেছেন। একজন শতভাগ পেশাদার সাংবাদিক হিসেবে কাজ করেছেন। যার সান্নিধ্যে ও অনুপ্রেরনায় চাঁদপুরে অসংখ্য সাংবাদিক কিংবা সম্পাদক সৃষ্টি হয়েছে। যাকে অনেকে বলে সাংবাদিক গড়ার কারিগর। যার অনুপ্রেরনা ও সহযোগিতায় আমিও সাংবাদিকতায় আজ এই অবস্থানে এসে একটি পত্রিকার সম্পাদক হয়েছি।

সাংবাদিকতার পাশা পাশি আমি এবং ইকরাম ভাই সামাজিক সংগঠনের অনেক কাজ করেছি। চাদঁপুরস্থ ফরিদগঞ্জ ফাউন্ডেশন ২০০০সালে চাঁদপুরের মাত্র ১১জনকে নিয়ে প্রতিষ্ঠা করি। বর্তমানে ৩০০জন আজীবন সদস্য সংখ্যা আছেন। তিনি ছিলেন প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এবং আমি ছিলাম সস্পাদক। প্রায় ২০টি বছর ধরে এক সাথে কাজ করেছি কতো স্মৃতি ইকরাম ভাইয়ের সাথে আমার। জীবনের বেশী সময় কাজ করেছি আমার প্রিয় সাংবাদিকতার গুরু ইকরাম ভাইয়ের সান্নিধ্যে। যাকে আমি একজন সাংবাদিকতার অভিভাবক হিসেবে দেখতাম সব সময়।

যার সহযোগিতা ও পরার্মশ নিয়ে সব সময়ই চলার চেষ্টা করেছি। আমাকে তিনি সব সময়ে ছোট ভাইয়ে মত ভালোবাসতেন এবং আপনি করে আমাকে ডাকতেন, আমিও তাকে বড় ভাইয়ে মত অনেক শ্রদ্ধা করতাম। উনার পরিবারের সাথে আমার পারিবারিক সম্পর্ক ছিলো। শুধুই তাই নয়, তার একমাত্র কন্যা আমার কন্যার সাথে একসাথে পড়া শুন করার কারণে সম্পর্ক আরো গভীর হয়। আমার জন্য সবময়ই তিনি কিছু করার চেষ্টা করতেন। তিনি করেছেনও আমার পুরো সাংবাদিকতার জীবনে সবময়ই পরামর্শ ও সহযোগিতা পেয়েছি যা ভুলার নয়। কৃতজ্ঞ, শ্রদ্ধা জানাই।

প্রিয় ইকরাম ভাইয়ের প্রতি। আজ আমি একজন অভিভাবককে হারালাম। শ্রদ্ধেয় ইকরাম ভাই না ফেরার দেশে চলে গেছে। ফরিদগঞ্জ বাসির পক্ষ থেকে মহান রাব্বুল আলামিনের কাছে ফরিয়াদ আল্লাহ যাতে আমাদের চাদঁপুরস্থ ফরিদগঞ্জ ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি আমার সাংবাদিকতার গুরু ইকরাম ভাইকে জান্নাতবাসী করে। আমিন।

লেখক-অধ্যাপক মোশাররফ হোসেন লিটন
সম্পাদক ও প্রকাশক
সাপ্তাহিক চাঁদপুর সকাল
ও যুগ্ম সম্পাদক, চাঁদপুর প্রেসক্লাব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


সংবাদ পড়তে লাইক দিন ফেসবুক পেজে